কোমর ব্যথার চিকিৎসা মানে কি এক্সরে ,  এম.আর.আই  করতে হবে ?

কোমর ব্যথার চিকিৎসা মানে কি এক্সরে , এম.আর.আই করতে হবে ?

কোমর ব্যথা হলে এক্সরে, এমআরআই ( x-ray, MRI) করতেই হবে। এমন ধারনা আমাদের অনেকের মাঝেই আছে । অনেক রোগী আছেন, যাদের ধারনা একটা এমআরআই করলেই তার রোগ নির্নয় পানির মত সহজ হয়ে যাবে। এবং তার কোমর ব্যথার  চিকিৎসা হয়ে যাবে ৷ অনেকক্ষেত্রেই দেখায় পরীক্ষার পর চিকিৎসক যা বলে রোগী তাই বিশ্বাস করে ৷  এটা একটা ভুল ধারনা বা ভুল বিশ্বাস ।

 

কোমর ব্যথার চিকিৎসা মানেই এক্সরে, এমআরআই নয়

অনেক রোগীকে দেখছি ফিজিওথেরাপি সেশনের সামান্য চার্জও বহন করার ক্ষমতা নেই, অথচ ধার কর্জ করে এমআরআই এক্সরে করেছে ৷ রোগীকে কেমনে বুঝাই  অধিকাংশই ক্ষেত্রেই কোমর ব্যথার চিকিৎসার জন্য এম আর আই লাগে না৷ আপনার কথা শুনে, আপনাকে ফিজিক্যালি এসেস করে বুঝা যায় আপনার কেন কোমর ব্যথা৷

রোগের ইতিহাস শুনলেই বুঝা যায় কি সমস্যা

অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায়  ক্রনিক কোমর ব্যথা অর্থাৎ দীর্ঘদিন ধরেই অনেকেই কোমর ব্যথায় ভুগতেছে ৷ ব্যথা কখনো বাড়ে, কখনো কমে। এই ব্যথা গুলো সিরিয়াস কোন  সমস্যা নয় ৷ বলা যায় মেকানিক্যাল ব্যাক পেইন। এই ব্যথা গুলোর লম্বা ইতিহাস থাকে ৷ তাই কোমর ব্যথার চিকিৎসা করতে হলে রোগের পুরো ইতিহাস শুনতে হয় ৷  ব্যথা অনেক কারনে  হয়ে থাকে , যেমন  আঘাত জনিত ব্যথা, সিজার পরবর্তী কোমর ব্যথা ,দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার জন্য কোমর ব্যথা , কোন কিছু তুলতে গিয়ে কোমর ব্যথা ৷  সঠিক কারন জানলেই  সঠিক রোগ নির্নয় হয়৷

 

সঠিক রোগ নির্নয়ের জন্য ফিজিক্যাল এসেস এর বিকল্প নেই

 

রোগীর কথা শুনার পাশাপাশি,  রোগীকে ফিজিক্যালি ভালভাবে এসেস করে দেখতে হয় ৷ বিশেষ করে রোগীর বসার পজিশন, হাঁটার পজিশন , দাঁড়ানোর পজিশন , কোমর বাঁকা আছে কিনা , পা উপরে তুলতে পারে কি না, নার্ভ ঠিক আছে না, মটর , সেনসরি  এই গুলো রোগীকে সরাসরি দেখেই চেক করতে হয় ৷ তাহলে সঠিক রোগ নির্নয় হয় ৷ কোমর ব্যথার সঠিক চিকিৎসা নিশ্চিত করা যায় ।

 

এক্সরে , এম.আর.আই  দিয়ে রোগ নির্নয়ে সহায়ক হয়

 

কোমর ব্যথার চিকিৎসা

ব্যথার কারণ নির্নয় এম আর আই, এক্সরে দিয়ে হয় না। এক্সরে এমআরআই পরীক্ষার রিপোর্টে বড়জোর রোগ নির্নয়ে সহযোগিতা করতে পারে  ৷ ব্যথা ডায়াগনোসিসের অনেকগুলো ধাপের মধ্যে একটি হল এক্সরে, এমআরআই । বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এমআরআই করলে দেখা যায় হাড়ের মাঝখান থেকে ডিস্ক বের হয়েছে, কেউ কেউ আবার রোগীদের কে জেল বের হয়ে নার্ভে চাপ দিচ্ছে এইভাবে বুঝান। অনেক সুস্থ মানুষকে এক্সরে এম.আর.আই করিয়ে দেখবেন, তারও  একই   সমস্যা আছে ,   কোমরের দুই হাড়ের মাঝ খান থেকে ডিস্ক বের হয়ে আসছে , অথচ তার কোন ব্যথা বা সমস্যা নেই ।

 

 

কখন এমআরআই,  এক্সরে দরকার হয়

এমআরআই অবশ্যই দরকার হতে পারে, যখন রোগীর মধ্যে সিরিয়াস কিছু চিহ্ন (Red flag) দেখা যায় । যেমন সব সময় ব্যথা হয়, ব্যথা দিন দিন বাড়তেছে, ওজন কমে যাচ্ছে,  রোগীর পায়ের দিকে সেনস বা অনুভূতি কমে গেছে , পায়ের পাতা উপরে উঠাতে পারে না  ( sensory & motor defecit) , প্রস্রাব ধরে রাখতে পারে না তখন এমআরআই সহ আরো অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষাই করতে হয় । এছাড়া কোমর ব্যথার ট্যাবলেট খাচ্ছেন, নিয়মিত কোমর ব্যথার ফিজিওথেরাপি নিচ্ছেন  বা  যথাযথ ভাবে কোমর ব্যথার চিকিৎসা নিচ্ছেন কিন্তু ভাল হচ্ছেই না, তখনই এমআরআই করে সহযোগিতা নেওয়া যেতে পারে।

 

 

শুরুতেই এক্সরে বা এম.আর.আই নয়

অনেক রোগী আছে, প্রথমেই এসে বলে স্যার আমার এক্সরে আর এমআরআই টা দেখেন আগে। রোগীকে কিভাবে বুঝাই চিকিৎসা করব আপনাকে , আপনার এক্সর বা এমআরআইকে না । এতে অনেক ভুল আসে,  যার কোন সমস্যা নাই অথচ তার সমস্যা আসতে পারে । আবার কারো সমস্যা থাকলেও অনেক সময় সমস্যা আসে না। এইজন্য রোগীর রোগের ইতিহাস শুনার আগেই এমআরআই দেখে নিলে রোগ নির্নয়  করতে সমস্যা হয়ে যায় । চিকিৎসক এমআরআই এর ডায়াগনোসিস দ্বারা ভায়াস বা একমুখী হয়ে যেতে পারে ৷ কিংবা কারো শরীরে তেমন কোন সমস্যা নাই, অথচ এম.আর.আই তে দেখল তার সমস্যা আছে। এতে সেই মানসিক ভাবেই ভেংগে পরে। হায় হায় আমার কি হল ৷ আমার কোমর ব্যথা ভাল হবে না আর ৷ গবেষনায় দেখা গেছে অনেক ক্ষেত্রেই এম আর আই এর রেজাল্ট ভুল আসে, যা রোগীর উপসর্গের সাথে মিলে না৷

 

সারমর্ম

কোমর ব্যথার চিকিৎসা মানেই এক্সরে , এম আর আই করতে হবে , এটা সত্য নয় । অনেক  ক্ষেত্রেই কোমর ব্যথা  ক্রনিক কন্ডিশন  হয়ে যায় । এবং  সেটা ভাল হতে  সময় লাগে ভাল হতে । আমাদের  দৈনন্দিন বিভিন্ন  উলটাপালটা  কাজের জন্য কোমর ব্যথা ফিরে ফিরে আসে । তাই অনেকেই হতাশ হয়ে যান । প্রকৃত পক্ষে কিছু এক্সারসাইজ এবং নিয়ম কানুন মেনে চললে কোমর ব্যথা ভাল হওয়া কোন ব্যাপারই  না । তবে  কোমর ব্যথার কারনে দৈনিন্দন কাজ কর্মে ব্যাঘাত ঘটলে কিংবা ব্যথা বেড়ে  গেল বা  পায়ের দিকে ব্যথা দিকে  ব্যথা গেলে সেই ক্ষেত্রে ভালভাবে ফিজিওথেরাপি  চিকিৎসা নেওয়া গুরুত্বপূর্ন ।

 

ধন্যবাদ
ডাঃ সাইফুল ইসলাম
বিপিটি ( ঢাবি- সিআরপি)
এমপিটি , অর্থোপেডিক ( ইন্ডিয়া)
প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, ভিশন ফিজিওথেরাপি সেন্টার
হাউজ ২৩, লেক ড্রাইভ রোড, সেক্টর ৭, উত্তরা. ঢাকা।
সরাসরি এবং অনলাইন এপয়েন্টম্যান্টের জন্য কল করুন   ০১৯৩২৭৯৭২২৯

 

কোমর ব্যথার এক্সারসাইজ

This Post Has 8 Comments

  1. সুকুমার মন্ডল

    খুব ভালো লাগছে। আর পারকিন্স রোগী সম্পর্কে কিছু উপদেশ দিলে উপকৃত হতাম।

    1. drsaifulislam

      অনেক ধন্যবাদ। শীঘ্রই লিখব । ভাল থাকবেন ।

Leave a Reply